• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

হামলাকারী সেই পুলিশ সদস্য ক্লোজড

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট৮:১৬ অপরাহ্ণ, মে ১১, ২০১৬

বরিশাল: অটোরিকশা চালকের ওপর হামলাকরী বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের সেই সহকারি উপ-পরিদর্শক (এএসআই) রিয়াদ হাসানের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। শাস্তিস্বরূপ ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে ক্লোজড করে বরিশাল পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়েছে। বরিশাল থেকে প্রকাশিত অনলাইন পত্রিকা বরিশালটাইমসের সংবাদের প্রেক্ষিতে বুধবার তাকে প্রাথমিকভাবে ক্লোজড করা হয়েছে।

তবে বিষয়টি তদন্ত চলছে, অভিযোগের সত্যতা মিললে আরও কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উচ্চমহলে সুপারিশ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংশি¬ষ্ট থানার উচ্চপদস্থ কর্মকতারা। অভিযুক্ত পুলিশ কর্মকর্তা রিয়াদ হাসান বরিশাল মেট্রোপলিটন বিমানবন্দর থানায় কর্মরত ছিলেন।

সংশি¬ষ্ট থানার সহকারি কমিশনার (এসি) আব্দুর রব বুধবার সন্ধ্যায় বিষয়টি মুঠোফোনে বরিশালটাইমসকে নিশ্চিত করেছেন।

খোঁজ খবর নিয়ে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার কাচারিবাড়ি এলাকায় বরিশাল-ঝালকাঠি সড়কের পাশে অটোরিকশা রেখে চালক খলিলুর রহমান বিশ্রাম নিচ্ছিলেন। সেই সময়ই এএসআই রিয়াদ হাসান বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেযোগে ঝালকাঠির উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলেন।

কিন্তু বিপরীত দিক থেকে একটি ট্রাক আসায় তিনি মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে অটোরিকশায় ধাক্কা দেন। এমনকি মোটরসাইকেল থেকে নেমে জানতে চান কেন সড়কের পাশে অটো রাখা হয়েছে। এসময় প্রতিত্তোরে চালক খলিলুর রহমান অটোটি সাইড করে রাখার বিষয়টি জানালে ক্ষুব্ধ এএসআই রিয়াদ তাকে হাতকড়া দিয়ে বেধড়ক পিটুনী দেন।

এতে অটোচালক গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়ার দৃশ্য দেখে এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে পুলিশ সদস্য রিয়াদ হাসানকে ধরেও একচোট গণপিটুনী দেয়। এমনকি তাকে আটকে রেখে উত্তেজিত জনতা সড়কটি অবরোধ করে রাখে। ফলে ওই সড়কের দু’প্রান্তে শত শত যানবাহন আটকা পড়ে।

তাৎক্ষণিক খবর পেয়ে ঝালকাঠির সহকারী পুলিশ সুপার সার্কেল এমএম মাহামুদ হাসান ছুটে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়ার চেষ্টা চালায়। কিন্তু শত শত উত্তেজিত জনতা ওই হামলাকারি পুলিশ সদস্যের বিচারের দাবি সিদ্ধান্তে অনঢ় থাকে।’ পরে অবশ্য ওই অটোচালককে চিকিৎসা খরচ বাবদ এক হাজার টাকা রিয়াদ হাসান জরিমানা দিলে আধাঘন্টা পরে উত্তেজিত জনতা অবরোধ তুলে নেয়।

এ বিষয়টি সেইদিন রাতেই বরিশালটাইমস পত্রিকা ফলাও করে প্রকাশ করলে টনক নড়ে পুলিশের উচ্চমহলের। ফলে ঘটনাটি অতি সহজেই দৃষ্টিতে আসে বরিশাল পুলিশের উচ্চমহলের। যে কারণে শাস্তিস্বরূপ তাকে বদলি করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়।

এর আগে গত মাসের শেষ সপ্তাহে পেশাদার সাংবাদিক হাসিবুল ইসলামকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে বরিশাল মেট্রোপলিটন ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট রফিকুল ইসলাম এবং কনস্টেবল রুহুল আমিনকে অভিযুক্ত করে আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়। সেই ঘটনায়ও সার্জেন্ট রফিকুল ইসলামকে ক্লোজড করে অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়।’

লাইভ

টপ