• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

হত্যার পরে ঝুলিয়ে রাখা হয় গৃহবধূর লাশ!

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট৭:৫৫ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৭, ২০১৬

বরিশাল: নগরীর হরিনাফুলিয়া এলাকার ভাড়াটিয়া বাড়ির বাসিন্দা গৃহবধূ হামিদা বেগমকে (২৮) বৃহস্পতিবার দুপুরে হত্যা করে বাড়ির মালিক ও তার লোকজনে লাশ ঝুঁলিয়ে রেখেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছেন।

 

ওই এলাকার জনৈক ছালাম শরীফের বাড়ির ভাড়াটিয়া মাসুদ হাওলাদার অভিযোগ করেন, তার মামা শ্বশুড় ছালাম শরীফ ও তার মেয়ে জামাতা শহিদ তার স্ত্রী হামিদা বেগমকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলিয়ে রেখে আত্মহত্যার কথা রটিয়েছে। তিনি আরও অভিযোগ করেন, তার স্ত্রী ও দুই সন্তানের জননী নিজে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করলে খাটে বসা অবস্থায় থাকতো না। আর হামিদার আত্মহত্যা করার কোন কারণই নেই।

 

স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফরিদ উদ্দিন হাওলাদার বলেন, ছালাম শরীফ ও তার মেয়ে জামাতা শহিদের সাথে গৃহবধূ হামিদা বেগমের বৃহস্পতিবার সকালে তুমুল ঝগড়া হয়। পরবর্তীতে ওইদিন দুপুরে গৃহবধূ হামিদার গলায় ফাঁস দেয়া লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। এসময় হামিদার স্বামী মাসুদ হাওলাদার বাসায় ছিলেন না।

 

কোতোয়ালী মডেল থানার এস.আই সত্যরঞ্জন খাসকেল বলেন, তারা আসার আগেই বাড়ির লোকজনে ওই গৃহবধূর মৃতদেহ নামিয়ে ফেলেছে। তিনি আরও বলেন, নিহতের স্বামীর অভিযোগের ভিত্তিতে লাশের ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন ব্যতীত এটি হত্যা না আত্মহত্যা তা বলা যাচ্ছেনা। তবে নিহত হামিদার শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি বলেও এসআই উল্লেখ করেন।

লাইভ

 

টপ