• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

শিক্ষককে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে ফুসে উঠেছে গ্রামবাসী

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট৭:৫২ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২, ২০১৬

মঠবাড়িয়া: পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতারের প্রতিবাদে এলাকাবাসী ফুঁসে উঠেছে। নয়টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক, এলাকাবাসীর মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে উত্তাল হয়ে উঠেছে পুরো এলাকা। স্থানীয় হারজী নলবুনিয়া দাখিল মাদ্রসার সুপার মাওলানা নুর ইসলাম(৫৫) এর বিরুদ্ধে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের মেটাতে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেল হাজতে পাঠানোর প্রতিবাদে শনিবার দুপুরে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে স্থানীয় মিরুখালী বাজার সড়কে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে মিরুখালী স্কুল এন্ড কলেজ, বঙ্গবন্ধু শেখ ফজিলাতুন্নেসা সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসা, নুর-আলা নুর ইসলামীয়া দাখিল মাদ্রাসা, ছোট হারজী সিনিয়র মাদ্রাসা, দেবীপুর সিনিয়র মাদ্রাসা ও খায়ের ঘটিচোরা দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবকসহ সহা¯্রাধিক এলাকাবাসী অংশগ্রহন করেন।

 

মানববন্ধন শেষে মিরুখালী স্কুল এন্ড কলেজের সম্মূখে অধ্যক্ষ আলমগীর হোসেনের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সুপার মাওলানা আব্দুর রহমান, মাওলানা রুহুল আমীন, মাওলানা আব্দুর রব, শিক্ষক রোকনুজ্জামান শরীফ প্রমুখ। বক্তারা বয়োবৃদ্ধ, অসুস্থ্য, প্রতিবন্ধী ওই শিক্ষককে নিঃশর্ত মুক্তি না দিলে লাগাতার কর্মসূচির হুমকি দেয়। এদিকে মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সাবেক পৌর প্রশাসক একেএম সেলিম মিয়া তার মাদ্রাসার সুপারকে জমা-জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে মঠবাড়িয়া থানায় দায়র করা একটি মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠানোর কথা দাবী করে বলেন, ঘটনার তদন্তে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

 
এর আগে ওই শিক্ষকের মুক্তির দাবীতে গত মঙ্গলবারও হারজী নলবুনিয়া দাখিল মাদ্রাসা, কেএম ইউসুফ আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও হারজী নলবুনিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিভাবক ও এলাকাবাসী মানববন্ধন করেন।

 
উল্লেখ্য, গত রোববার একটি মামলায় হারজী নলবুনিয়া দাখিল মাদ্রসার সুপার নূর ইসলামকে জেল হাজতে পাঠায় থানা পুলিশ।

লাইভ

 

টপ