• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

ভোলায় ৮ প্রতিষ্ঠান আগুনে পুড়েছে, ক্ষতি ১ কোটি

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট১:০০ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৮

ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলার শম্ভুপুর খাসের হাটে আগুন লেগে অন্তত ৮টি দোকান পুড়ে ছাই হয়েছে। এতে প্রায় কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা। সোমবার দিবাগত রাত ১২ টার দিকে বৈদ্যুতিক শটসার্কিট থেকে এই অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয় বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে স্থানীয়রা।

স্থানীয়রা জানায়, সোমবার দিবাগত রাত ১২ টার দিকে বাজারের পশ্চিম মাথায় নাজিমের ইলেট্রনিক্স দোকানের বৈদ্যুতিক শট সার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত। মুহূর্তের মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখা পাশ্ববর্তী ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে তজুমদ্দিন ফায়ার সার্ভিস ও লালমোহন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে প্রায় ৪-৫ ঘণ্টার চেষ্ঠায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

এর মধ্যে সুমনের কসমেটিক্স, বেল্লালের কীটনাশক, নাজিমের ইলেকট্রনিক্স, আলামের চায়ের দোকান, রিয়াজ স্টোর, প্রদিপের চায়ের দোকান, লক্ষণের সেলুন, ইউসুপের ইলেকট্রনিক্সের দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

এ ছাড়া অলি উদ্দিনের মোবাইলের দোকান ও রহমান স্টোরসহ বেশ কয়েকটি দোকানের আংশিক ক্ষতির শিকার হয়।

খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে যান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জালাল উদ্দীন, উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন পোদ্দার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেমা আলম সাজু, থানা ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ মো. ফারুক আহম্মদ, শম্ভুপুর ইউপি চেয়ারম্যান এবং উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক দেওয়ান।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার জালাল উদ্দীন বরিশালটাইমসকে বলেন, আমি অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রাথমিকভাবে জেলা প্রশাসক মহোদয়কে জানিয়েছি। ক্ষয়ক্ষতি নির্ধারণ ও ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের তালিকা প্রস্তুতের কাজ চলছে।

এ ব্যাপারে থানা অফিসার ইনচার্জ মো. ফারুক আহম্মদ বরিশালটাইমসকে বলেন, খবর পেয়ে রাতেই আমি তজুমদ্দিন ও ভোলা ফায়ার সার্ভিসে খবর দেই এবং যাতে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে এ জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।’

লাইভ

টপ