• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

ভোলায় চর দখল নিয়ে সংঘর্ষে আহত ১০

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট৭:৪৪ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৮

ভোলায় জমির দখল নিয়ে সংঘর্ষে নারীসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টায় সদর উপজেলার ভেলুমিয়া ইউনিয়নের গাজীর চর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত আবুল কাশেম, আব্দুল মজিদ, রোকেয়া বেগম, বকুল বিবি, রুমা আক্তার ও ইয়ানুর বেগম বর্তমানে ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আহতরা জানান- স্থানীয় চরগাজী মৌজার ১৮৬ নম্বর খতিয়ানের প্রায় তিন একর জমি তারা পৈত্রিক ও ক্রয়সূত্রে দীর্ঘদিন ধরে ভোগ করে আসছেন। দুই মাস ধরে স্থানীয় নাছির উদ্দিন গংরা তাদের ভোগকরা দুই একর জমি নিজের বলে দাবি করেন। এ নিয়ে তারা ভেলুমিয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে একটি অভিযোগ দেন। এতে ফাঁড়ির ইনচার্জ স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের বিষয়টি মীমাংসা করার দায়িত্ব দেন।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি বুধবার স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য গজনবী গোলদার, ইউনুছ কমান্ডার, কবির হোসেন, সিরাজ গোলদার, নাছির গোলদার উভয় পক্ষের কাগজপত্র নিয়ে মীমাংসায় বসেন। এতে নাছির উদ্দিন গংদের আনা কাগজপত্র ভুয়া বলে প্রমাণিত হয়। সালিশে নাছির গংদের সঠিক কাগজপত্র নিয়ে আসতে পারলে জমি বুঝিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বলা হয়, সঠিক কাগজপত্র দাখিল না করা পর্যন্ত জমি আবুল কাশেম গংদের দখলে থাকবে। সালিশের রায়ের পর আবুল কাশেম গং সোমবার সকালে ওই জমিতে ধান রোপন করেন। পরে সকাল ১০টার দিকে জামালের নির্দেশে নাছির উদ্দিনের নেতৃত্বে ছেলে জাকির হোসেন, সোহাগ, আমির হোসেন, জাহিদ ও ইসমাইল লাঠি ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে জমি দখল নিতে যান। তারা জমিতে রোপন করা ধানের চারা উপড়ে ফেলেন। এসময় আবুল কাশেম ও আব্দুল মজিদ তাদেরকে বাধা দিলে তারা লাঠি ও দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মারধর ও কুপিয়ে জখম করে। স্থানীয়রা ভেলুমিয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে খবর দিলে পুলিশ এসে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠায়।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত নাছির উদ্দিন বরিশালটাইমসকে বলেন- আমরা তাদের ওপর হামলা করিনি। তারা উল্টো আমাদের লোকজনের ওপর হামলা করে একজনকে আহত করেছে। তিনি ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ বিষয়ে ভেলুমিয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই গোলাম মাওলা বরিশালটাইমসকে বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে আহতদের উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছি। এখন পর্যন্ত কেউ মামলা করেনি। মামলা করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

লাইভ

টপ