• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

ভোলায় দু’গ্রুপের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট৯:২৫ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৮, ২০১৬

ভোলা সদরের আলীনগরে পৃথক দু’টি স্থানে ইউপি সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া, গুলিবর্ষণ ও সংঘর্র্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছেন।

এদের মধ্যে সাইফুল ইসলাম নামের একজন গুলিবিদ্ধ ও ইউসুফ হোসেন নামের একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৮ মার্চ) রাত সাড়ে ৮টা থেকে সাড়ে ৯টা পর্যন্ত হাজিরহাট ও শান্তিরহাট এলাকায় সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি পাইপগান ও বেশকিছু ককটেল উদ্ধার করেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ইউনিয়নজুড়ে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন কর হয়েছে। আটক করা হয়েছে সম্রাট ও ইশ্রাফিল নামের দুই যুবককে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, সদরের আলীনগর ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মাকসুদুর রহমান ও মো. হাসেম গ্রুপের সঙ্গে প্রচারণা নিয়ে উত্তেজনা চলে আসছিলো। শুক্রবার রাতে উভয় প্রার্থী সমর্থকরা হাজিরহাট এলাকায় গণসংযোগ করছিলো। এসময় বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে উভয়ের সমর্থকরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

প্রায় ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। আহত হন কমপক্ষে ২৫ জন।

খবর পেয়ে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় বেশ কিছু ককটেল ও একটি পাইপগান উদ্ধার করে।

এদিকে ঘটনার পর থেকে পুরে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। যেকোনো মুহূর্তে ফের সংঘর্ষের আশংকা করা হচ্ছে।

অপরদিকে প্রায় একই সময়ে শান্তিহাট এলাকা, বাপ্তা ও লালমোহনের ধলীগৌরনগর ইউনিয়নের দুই পক্ষের সংঘর্ষে আরো ২০ জন আহত হয়েছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।

ভোলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বলেন, পুরো এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। জড়িতদের আটকে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ভোলা। দিনভর পৃথক ৫টি স্থানে সংঘর্ষ হয়েছে। এসব ঘটনায় প্রার্থীরা একে অপরের বিরুদ্ধে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছেন।

লাইভ

টপ