• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

ভিটা পেল সেই ১৪ পরিবার

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট২:০৩ অপরাহ্ণ, মার্চ ২০, ২০১৬

ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে বাস্তুভিটা থেকে উচ্ছেদ হওয়া বরগুনার তালতলী উপজেলার চন্দনতলার ১৪টি হিন্দু পরিবার এক বছর পর ফিরেছে নিজ ভিটায়।

ঘরবাড়ি ফিরে পাওয়ার সঙ্গে তারা পেয়েছেন বিদ্যুৎ সংযোগ, পাকা মন্দির, উন্নত কৃষি সরঞ্জাম, গভীর নলকূপসহ নানা উপকরণ। এছাড়া নিরাপত্তার স্বার্থে শনিবার সকালে সেখানে উদ্বোধন করা হয়েছে একটি পুলিশ ক্যাম্পও।

এদিন সকাল ১১টায় এ ক্যাম্পের উদ্বোধন করে বরগুনার পুলিশ সুপার বিজয় বসাক পিপিএম।

তিনি বলেন, ‘এ পুলিশ ক্যাম্পের মালিক আপনারা, এটি স্থাপন করা হয়েছে আপনাদের নিরাপত্তার জন্য, রাষ্ট্র আপনাদের নিরাপত্তায় বদ্ধপরিকর।’

২০১৫ সালের ১৩ মার্চ বাস্তুভিটা থেকে হিন্দু পরিবারগুলোকে উচ্ছেদের পর বিরান ভূমিতে পরিণত হয় চন্দনতলার ওই হিন্দু পাড়াটি। তারপর গণমাধ্যমে সেই খবর প্রকাশিত হলে সমালোচনার ঝড় উঠে।

তখনই নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগে পরিবারগুলোকে পুনরায় পৈতৃক ভিটায় পুনর্বাসনের কাজ শুরু হয়। এরই অংশ হিসেবে পুলিশ ক্যাম্প ভবন নির্মাণ করা হয়।

সহিংসতার শিকার ওই পরিবারগুলোর পক্ষ থেকে যাদব সরকার বলেন, ‘প্রশাসনিক সহযোগিতায় আমরা সবকিছু আবার ফিরে পেলাম। পুনর্বাসনের কাজে সবাই যা কিছু করেছে, সত্যিই আমরা কৃতজ্ঞ।’

তবে ঘটনার ‘মূল হোতা’ স্থানীয় যুবলীগ নেতা জাকির হোসেন সরদার এবং আব্দুর রশিদ দ্রুত জামিনে বের হয়ে আসায় আতঙ্কে রয়েছেন তারা।

ads

লাইভ

টপ