• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

বাউফলে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, ধর্ষক পলাতক

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট৩:৪১ অপরাহ্ণ, মে ১৯, ২০১৭

পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানায় একটি লিখিত অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে।

ধর্ষণের শিকার ওই স্কুলছাত্রী নিজেই থানায় এই অভিযোগ দেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। অভিযোগে একই বাড়ির আব্দুল মন্নান হাওলাদারের ছেলে সাকোয়ার হোসেনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

অভিযোগের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়- স্থানীয় নওমালা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ওই ছাত্রীর সাথে সাকোয়ার হোসেনের বিয়ের প্রলোভন দিয়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এই সম্পর্কের সূত্র ধরে গত (১৬ মে) মঙ্গলবার বিয়ে করবে বলে ওই ছাত্রীকে নিয়ে কুয়াকাটা যায় সাকোয়ার। বিয়ে না করে ভুয়া কাজী দেখিয়ে সময়ক্ষেপণ করলে রাত হয়ে যায়।

ওই সময় বিয়ে না করে একটি আবাসিক হোটেলে থাকার প্রস্তাব দিলে তা ওই ছাত্রী প্রত্যাখ্যান করেন। এক পর্যায়ে উভয়ের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। পরে ওই ছাত্রী বাড়িতে আসার জন্য চাপ প্রয়োগ করলে রাত ৯টার দিকে কুয়াকাটা থেকে বাড়ির উদ্দেশে রওনা হয়।

রাত ১টার দিকে নওমালা বাজারে নামলে বাড়ি যাওয়ার পথে রাস্তার পাশে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে সাকোয়ার।

এ ঘটনাটি উভয়ের পরিবারের মধ্যে জানাজানি হলে সাকোয়ার তাকে বিয়ে করবে বলে ঘটনাটি নিয়ে বাড়াবাড়ি না করতে বলে। এক পর্যায়ে গত বুধবার (১৭ মে) সকালে বিয়ের দাবিতে প্রেমিক সাকোয়ারের ঘড়ে অবস্থান নেয় ধর্ষণের শিকার হওয়া ওই স্কুলছাত্রী।

পরবর্তীতে বাউফল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনিসুর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই স্কুছাত্রীকে উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেন। এবং স্থানীয় ভাবে মীমাংসার জন্য সালিশ মানিয়ে দেন।

কিন্তু কোন সমাধান না পাওয়ায় শুক্রবার (১৯ মে) দুপুরে ওই স্কুলছাত্রী বাদী হয়ে বাউফল থানায় মামলা দায়ের করেন।

বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) লুৎফর রহমান বরিশালটাইমসকে বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।”

লাইভ

টপ