• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

বরিশাল বুলসকে শোকজ করা হয়েছে

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট৪:৪৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৬, ২০১৭

আইকন ক্রিকেটার হিসেবে বরিশাল বুলসে গত বিপিএলে খেলেছিলেন মুশফিকুর রহিম। কিন্তু দলবদলের সময়ে বরিশালের হয়ে খেলতে চাননি তিনি। শেষ পর্যন্ত বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের জোরাজুরিতে খেলতে সম্মত হন।

কিন্তু খেলে মুশফিক কি পেয়েছেন? দলকে শেষ চারে উঠাতে পারেননি ঠিকই। কিন্তু বড় জয়গুলোতে বড় অবদান রেখেছিলেন বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক। কিন্তু বিসিবির পরিচালক ও বরিশাল বুলসের কর্ণধার এমএ আওয়াল চৌধুরী তাকে নিয়েই করেছেন অশোভন মন্তব্য, যা মেনে নিতে পারেননি মুশফিক। প্রতিবাদ করেছেন গণমাধ্যমে। মৌখিক বিচার দিয়েছেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিবের কাছে।

জাতীয় দলের খেলোয়াড় প্রসঙ্গে অশোভন মন্তব্য মেনে নিতে পারছে না বিসিবি। এরই মধ্যে শোকজ করা হয়েছে বরিশাল বুলসের কর্ণধারকে। ক্ষমা না চাইলে কঠোর শাস্তি হতে পারে বিসিবির এ পরিচালকের। প্রয়োজনে ফ্র্যাঞ্চাইজি বাতিলের সিদ্ধান্তও নিতে পারে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, বিসিবি সভাপতি দেশে ফেরার পর ইস্যুগুলো নিয়ে আলোচনা করবে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। তবে এর আগেই বরিশাল বুলসকে শোকজের জবাব দিতে হবে।

মুশফিকুর রহিম মৌখিক বিচার দিয়েছেন যেন পরবর্তীতে কোনো ক্রিকেটারকে নিয়ে অশোভন ও বাজে মন্তব্য না করে কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি। গতকাল মুশফিকুর রহিম বলেছিলেন,‘একজন ক্রিকেটার হিসেবে এমন কথাশোনা আমার জন্য খুবই কষ্টকর।আজকে হয়তো এটা আমার সঙ্গে হয়েছে। কালকে তো অন্য কারো সঙ্গে হতে পারে।দেশকে আপনি এতো বছর ধরে সার্ভিস দিচ্ছেন। ভবিষ্যতে যাতে এমনটি আর কারো সঙ্গে না হয়, এতোটুকু আপনি চাইতেই পারেন।’

ads

লাইভ

টপ