• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

বরিশাল বিএম কলেজে ছাত্রদের দুগ্রুপে সংঘর্ষে আহত ১০

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট৪:২৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৬, ২০১৭

বরিশাল সরকারি ব্রজমোহন (বিএম) কলেজে ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে ছাত্রদের দুগ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ১০ আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় অর্থনীতি বিভাগের গোপাল নামে এক ছাত্রকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রোববার (১৬ জুলাই) বেলা সাড়ে ১২টার দিকে বিএম কলেজ ক্যাম্পাসে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

 

সাধারণ শিক্ষার্থীদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়- সমাজবিজ্ঞান দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ও অশ্বিনী কুমার ছাত্রাবাসের আবাসিক ছাত্র মো. অলি তার বান্ধবীকে নিয়ে জীবনানন্দ দাশ মঞ্চে আড্ডা দিচ্ছিলেন। এ সময় অলির বান্ধবীকে ইভটিজিং করে সমাজকল্যাণ বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র এবং জীবনানন্দ দাশ হলের আবাসিক ছাত্র পলাশ। এনিয়ে অলি ও পলাশের মধ্যে বাকবিতন্ডার একপর্যায়ে দু’জনের মধ্যেই হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

পরে অলি অশ্বিনী কুমার ছাত্রাবাসে গিয়ে তার সহযোগীদের নিয়ে পলাশকে মারধর করেন।

এই খবর ছড়িয়ে পড়লে পলাশের সহযোগীরা জীবনানন্দ দাশ হল থেকে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বের হয়ে আসলে দুই গ্র“পের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়।

এক পর্যায়ে সেখানে উভয়পক্ষ ইট পাটকেল নিক্ষেপে লিপ্ত হয়। ফলে মূহূর্তের মধ্যেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে পুরো ক্যাম্পাস এলাকায়। এই ঘটনায় উভয়পক্ষের ১০ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় অর্থনীতি বিভাগের গোপালকে উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতয়ালি মডেল থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) মশিউর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, তুচ্ছ বিষয় নিয়ে ছাত্রদের দুই গ্র“পের মধ্যে ঝামেলা হয়েছে। বর্তমানে পরিবেশ শান্ত রয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ক্যাম্পাসে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

এ বিষয়ে ব্রজমোহন (বিএম) কলেজের অধ্যক্ষ স.ম ইমানুল হাকিম সাংবাদিকদের জানান, বিষয়টি তিনি শুনেছেন। এই ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠনের প্রস্তুতি চলছে। ওই কমিটি তদন্ত প্রতিবেদন দিলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।”

ads

লাইভ

টপ