• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

বরিশালে ছাত্রলীগ কর্মীর হাত-পায়ের রগ কর্তন

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট৭:১১ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৭, ২০১৬

বরিশাল: বরিশাল সরকারি ব্রজমোহন (বিএম) কলেজ ছাত্রলীগ কর্মী মো. মানিক (২০) নামে এক যুবককে কুপিয়ে হাত-পায়ের রগ কেটে দিয়েছে প্রতিপক্ষ এক ছাত্রলীগ কর্মী। শনিবার (১৬ এপ্রিল) রাতে কলেজ ক্যাম্পাসের মহাত্মা অশ্বিনী কুমার (ডিগ্রী) ছাত্রাবাসের পিছনে এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর অবস্থায় ওই ছাত্রলীগ কর্মীকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ছাত্রলীগ কর্মী মো. মানিক বিএম কলেজের সংস্কৃতি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শনিবার রাতে মানিক বিএম কলেজের ডিগ্রী হলের পেছনে চায়ের দোকানে গেলে কলেজের অপর ছাত্রলীগ কর্মী পিয়াল ১০ থেকে ১২ সহযোগী নিয়ে তার ওপর হামলা চালায়। এক পর্যায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মানিকের হাত-পায়ের রগ কেটে দেয় পিয়াল ও তার সহযোগীরা।

বরিশাল মেট্রোপলিটন কোতয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাখায়াত হোসেন বাংলামেইলকে জানান, বিএম স্কুলের মেলায় শুক্রবার রাতে মেয়েলি বিষয় নিয়ে মানিক ও পিয়ালের সাথে ঝামেলা হয়। এর জের ধরেই শনিবার রাতে এ মানিককে কোপায় পিয়াল। এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের পরবর্তী ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে,  শুক্রবার রাতে বিএম স্কুলের বৈশাখী মেলায় বসে পিয়ালের প্রেমিকাকে উত্যাক্ত করে মানিক ও তার সহযোগীরা। ওই সময় মেয়ের শ্লীলতাহানীও করা হয়। পরে পিয়াল এ ঘটনার প্রতিবাদ করতে গেলে মানিক তার সহযোগিদের নিয়ে পিয়ালের ওপর হামলা চালায়। এর জেরেই মানিকের হাত-পায়ের রগ তারা কেটে দেয় বলে অভিযোগ উঠেছে।’

শেবাচিমে চিকিৎসাধীন মানিক জানান, কোন কারণ ছাড়াই পিয়াল তার ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়েছে। পূর্ব থেকেই তার ওপর পিয়ালের অক্রোশ ছিলো বলে অভিযোগ করেন মানিক।

তবে এসব অভিযোগ সমূলে অস্বীকার করে ছাত্রলীগ কর্মী পিয়াল বলেন, মানিক ছাত্রদল কর্মী ছিলো। কিন্তু সম্প্রতি ছাত্রলীগ কর্মী উজ্জলের সাথে মিলে সে এখন ছাত্রলীগ কর্মী হয়ে গেছে।

মানিক এর পূর্বে কলেজে বসে প্রকাশ্যে একাধিক ছাত্রীকে লাঞ্ছিত করেছে। এরপর সে ধারাবাহিকভাবে বিভিন্ন স্থানে বসে মেয়েদের উত্যাক্ত করতে থাকে। মূলত এ কারণে প্রতিবাদ করা হয়েছে।’

লাইভ

টপ