• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

পুলিশ পরিচয়ে মাদরাসাছাত্র অপহরণ

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট১০:০৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৬, ২০১৬

পিরোজপুর: জেলার জিয়ানগরে পুলিশ পরিচয়ে আব্দুল্লাহ আল মামুন নামে এক মাদরাসাছাত্রকে অপহরণের চার ঘণ্টা পর বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জ থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় মহিম ফকির (২৫) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে।

বুধবার সকাল ১০টায় জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, মঙ্গলবার জিয়ানগর উপজেলার বালিপাড়া সিনিয়র মাদরাসার আলিম পরীক্ষার্থী আবদুল্লাহ আল মামুনকে হাদিস বিষয়ে পরীক্ষার দিন পরীক্ষাকেন্দ্রের সামনে থেকে অপহরণকারীরা জিয়ানগর থানার ওসির বরাত দিয়ে মোটরসাইকেলে তুলে নেয়। এরপর কাইয়ূম ও মহিম নামের দুই অপহরণকারী মামুনকে অচেতন করে বাগেরহাট জেলার মোড়েলগঞ্জের পুলেরহাট বাজারে ও পরে বৌলপুর নিয়ে আটকে রাখে ৭০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

এ ব্যাপারে অপহৃত মামুন জানায়, জ্ঞান ফিরে পেয়ে সে মোবাইলের মাধ্যেমে তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে অপহরণের কথা জানায়। এরপর অপহরণকারীরা মোবাইল ফোনে মামুনের পরিবারের কাছে ৭০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। মামুনের কাছে থাকা ৪ হাজার টাকা নিয়ে নেয় অপহরণকারীরা। মামুনের বড় ভাই তাৎক্ষণিক ৮ হাজার টাকা বিকাশের মাধ্যেমে পাঠিয়ে দিয়ে বিষয়টি ইন্দুরকানী থানায় জানান। থানা পুলিশ দ্রুত পদক্ষেপ নিয়ে মোবাইল ট্রাকিংএর মাধ্যমে মোড়েলগঞ্জের পুলেরহাট বাজারের মাষ্টার ক্লথ ষ্টোর বিকাশ সেন্টারে ওঁৎ পেতে থেকে অপহরণকারী মহিম ফকিরকে (২৫) হাতেনাতে আটক করে। মহিমের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী মোড়েলগঞ্জের বৌলপুর থেকে পুলিশ মামুনকে উদ্ধার করে। এ সময় অপর অপহরণকারী কাইয়ুম ফকির পালিয়ে যায়।

ইন্দুরকারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুল হক জানান,এ ব্যাপারে থানায় দুই জনকে আসামি করে একটি অপহরণ মামলা হয়েছে। অপর অপহরণকারী কাইয়ুম ফকিরকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

লাইভ

টপ