• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

দক্ষিণাঞ্চলে মাদক চোরাচালানের মূল হোতা মঠবাড়িয়ার ছগির

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট৪:৪৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০১৭

খুলনায় সোয়া দুই কেজি কোকেনসহ মাদক চোরাচালান চক্রের ৬ সদস্য আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে কোকেনের এতো বড় চালান এই প্রথম ধরা পড়লো বলে জানিয়েছে র‌্যাব। উদ্ধার কোকেনের আনুমানিক বাজার মূল্য ২২ কোটি ৫০ লাখ টাকা।

এই মাদক চোরাচালান চক্রের মূল হোতা পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার দাউদখালী গ্রামের মৃত এম এ ওয়াহিদের ছেলে আরিফুর রহমান ওরফে ছগির (৬০)। তার সঙ্গী খুলনার রূপসা উপজেলার আইচগাতী গ্রামের মো. শহীদ মল্লিকের ছেলে সোহেল রানা (৩৫), ডুমুরিয়া উপজেলার ভান্ডারপাড়া গ্রামের মৃত কৃষ্ণপদ বিশ্বাসের ছেলে বিকাশচন্দ্র বিশ্বাস (৩৫), মহানগরীর টুটপাড়া কবরখানা মোড়ের ২৫১ আকাশ ইল্লিল ম্যানসনের বাসিন্দা মৃত শিকদার আইয়ুব আলীর ছেলে এস এম এরশাদ হোসেন (৪৮), দাকোপ উপজেলা সদর চালনার বৌমার বটতলা গ্রামের কৃষ্ণপদর ছেলে বিকাশচন্দ্র মন্ডল (৫৫) এবং একই উপজেলার মৌখালী গ্রামের মো. ইউনুস আলী ফকিরের ছেলে ফজলুর রহমান ফকির (৩৭)।

শনিবার (১২ আগস্ট) দুপুরে র‌্যাব-৬-এর লবণচরাস্থ খুলনা সদর দফতরে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে র‌্যাব-৬-এর কমান্ডিং অফিসার (সিও) খোন্দকার রফিকুল ইসলাম জানান, মাদক চোরাচালান চক্রটির মূল হোতা পিরোজপুর জেলার মঠবাড়ীয়া উপজেলার দাউদখালী গ্রামের আরিফুর রহমান ওরফে ছগির খুলনা মহানগরীর ১৮/২ গগনবাবু রোডের একটি বাড়িতে ভাড়া থাকেন। দীর্ঘদিন ধরে তিনি ভাড়া বাড়িতে থেকে মাদক ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলেন।

তিনি আরও জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৬ সদর কোম্পানির একটি টিম শুক্রবার রাত ১০টার দিকে জানতে পারে মহানগরীর ময়লাপোতা মোড়ের মসজিদের দক্ষিণ পাশের আল-আরাফা এটিএম বুথের সামনে মাদক বিক্রি করা হচ্ছে। সেখানে অভিযান চালিয়ে প্রথমে চোরাচালান চক্রের সদস্য সোহেল রানাকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার শরীরে তল্লাশি চালিয়ে ২৩০ গ্রাম কোকেন পাওয়া যায়।

তারপর স্বীকারোক্তিতে জানা যায় এই চক্রের মূল হোতা আরিফুর রহমান ওরফে ছগির। এরপর ছগিরকে তার বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের নিয়ে রূপসা উপজেলার রাজাপুর গ্রামের ভাড়া বাড়ি থেকে এই চক্রের অপর সদস্য বিকাশচন্দ্র বিশ্বাসকে গ্রেফতার করা হয়। বিকাশের কাছ থেকে বাকি কোকেন উদ্ধার করা হয়েছে। তার দেওয়া তথ্যমতে, চোরাচালান চক্রের অন্যান্য সদস্যদেরও গ্রেফতার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে তারা কোকেন বিক্রির সঙ্গে জড়িত। প্রেস ব্রিফিংয়ে র‌্যাব-৬-এর কমান্ডিং অফিসার (সিও) খোন্দকার রফিকুল ইসলাম দাবি করেন কোকেনের এতো বড় চালান আটক দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে এই প্রথম।

শুক্রবার রাত ১০টা থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত মহানগরীর ময়লাপোতাসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে কোকেনসহ তাদের আটক করা হয়।”

লাইভ

টপ