• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

ভোলায় কিশোরী ধর্ষিত: সমঝোতার টাকা লুটপাট!

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট৯:১০ অপরাহ্ণ, মে ১৯, ২০১৬

জেলার চরফ্যাশন উপজেলার দুর্গম ঢালচর ইউনিয়নে শ্রমিকলীগ নেতার ছেলে রাকিবুল ইসলামের ধর্ষণের ঘটনায় দেড় লাখ টাকায় সমঝোতার নামে ভাগ বাটোয়ারার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে। তবে কিশোরীর পরিবার বলছে কিছুই পাননি।

স্থানীয়রা ও কিশোরীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার (১৭ মে) অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া স্কুল ছাত্রীকে ঘরে রেখে বাবা মা বেড়াতে যান। সুযোগ বুঝে রাকিব ঘরের বেড়া কেটে কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এসময় কিশোরীর ডাক চিৎকারে এলাকার লোকজন ঘটনাস্থল থেকে আপত্তিকর অবস্থায় ওই শ্রমিকলীগ নেতার ছেলেকে ধরে ফেলে। পরে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেন স্থানীয় চকিদার ও দফাদার।

স্থানীয়রা আরো জানান, গত বুধবার নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম হাওলাদার ও সকল ইউপি সদস্যদের নিয়ে নিজ বাড়িতে সমঝোতা বৈঠকে বসেন। সারাদিন আলোচনার পর কিশোরীর পরিবারকে দেড় লাখ টাকা ক্ষতিপুরণ দেয়ার শালিসের সিদ্ধান্ত হয়। এর মধ্যে ৮০ হাজার টাকা পাবে কিশোরী আর বাকি টাকা শালিস ও আইনপ্রয়োগকারী সংস্থাকে দেয়া হবে।  তবে কিশোরীর মামা বলেন, শুনেছি শালিসে টাকা জরিমানা করা হয়েছে। তবে তাঁরা এখনো আমাদের কোনো টাকা দেয়নি।

এবিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বলেন, শালিস বসিয়ে সমঝোতার চেষ্টা করেছিলাম। প্রথমে বিয়ে দিতে চেয়েছি। পরে মেয়ের বয়স ১৪ বছর হওয়ায় সেটিও সম্ভব হয়নি। পরে প্রস্তাব উঠেছে টাকা জরিমানার কিন্তু শেষ পর্যন্ত কিছুই করা সম্ভব হয়নি। ঝুলন্ত অবস্থায় আছে।

দক্ষিণ আইচা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হানিফ শিকদার বলেন, মঙ্গলবার দিবাগত রাতে আলামতসহ ওই বখাটে রাকিবকে আটক করে পুলিশ। তবে তিন দিনেও কোনো অভিযোগকারী না আসায় আমরা তাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছি। শুনেছি বিষয়টি স্থানীয়রা সমঝোতা করছেন। কিন্তু এ ধরনের ঘটনায় স্থানীয় শালিস কখনোই সমঝোতা করতে পারেন না; সেটি বে-আইনি।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে ঢালচর ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীকে বাড়িতে রেখে বাবা-মা বেড়াতে যায়। এসময় তরুণীকে একা পেয়ে ইউনিয়ন শ্রমিকলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম মাঝির ছেলে রাকিবুল ইসলাম ফাঁকা ঘরে ঢুকে কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা করলে গ্রামের লোকজন তাকে ধরে ফেলে। ওই সময় স্থানীয়রা দফাদার অলিউর রহমান ও চৌকিদার মাসুদের কাছে ধরিয়ে দেয়।

লাইভ

টপ