• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

কলেজ শিক্ষক পেটানো সেই ২ ছাত্রলীগকর্মী গ্রেপ্তার

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট১:১৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১০, ২০১৭

বরিশালের মুলাদী সরকারি ডিগ্রি কলেজের দুই শিক্ষকের ওপর হামলা মামলার আসামি দুই ছাত্রলীগ কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার (০৯ আগস্ট) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার মোল্লাবাজার এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- মুলাদী সরকারি ডিগ্রি কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের ১ম বর্ষের ছাত্র মো. শাহাদাত এবং ব্যবস্থাপনা বিভাগের ১ম বর্ষের ছাত্র মো. আলী হাসান। তারা দুইজনই ছাত্রলীগের সক্রিয় কর্মী বলে জানিয়েছে কলেজের একাধিক শিক্ষার্থী।

মুলাদী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মতিউর রহমান জাগো নিউজকে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। তারা দুইজনই মামলার আসামি। বাকি আসামিদের অবস্থান জানতে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ ও পাশাপাশি অভিযান চলছে। খুব শিগগিরিই সকল হামলাকারীদের গ্রেফতার করা যাবে বলেও ওসি আশা প্রকাশ করেন।

উল্লেখ্য, মুলাদী সরকারি ডিগ্রি কলেজের সম্মান শ্রেণির ছাত্র মো. শাওন গত মঙ্গলবার সকালে কলেজের আইডি কার্ড প্রদর্শন না করে একাডেমিক ভবনের দোতলায় যাচ্ছিল।

এ সময় শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটির সদস্য প্রভাষক হাফিজুর রহমান তাকে বাধা দেন। এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে শাওন শিক্ষক হাফিজুরের ওপর হামলা করলে অন্যান্য ছাত্ররা তাকে আটক করে।

পরে শাওনকে কান ধরে ওঠবস করে ছেড়ে দেয়া হয়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে শাওন আরও ১০ থেকে ১২ জন সহযোগী নিয়ে লাঠিসোটাসহ ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে। তারা ২০২ নম্বর কক্ষের ঢুকে পাঠদানরত প্রভাষক আব্দুল আলীমকে বেধড়ক মারধর ও কয়েকটি শ্রেণি কক্ষের দরজা-জানালা ভাঙচুর করে।

এছাড়া বাংলা বিভাগের প্রভাষক হাফিজুর রহমানকে মারধর করে আহত করে। অন্যন্য শিক্ষক ও ছাত্ররা ঘটনাস্থলে ছুটে আসার আগেই হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

কলেজের অধ্যক্ষ দেলোয়ার হোসেন বলেন, হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র শাওনের নেতৃত্বে ১৫ থেকে ২০ জন বহিরাগত মঙ্গলবার হামলা চালিয়ে ইসলামী শিক্ষা বিভাগের প্রভাষক আব্দুল আলীম ও বাংলা বিভাগের প্রভাষক হাফিজুর রহমানকে আহত করে। এ ঘটনায় ১০ জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাত আরও ৪-৫ জনকে আসামি করে গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে তিনি মুলাদী থানায় মামলা করেন।

ঘটনার পর কলেজ একাডেমিক কাউন্সিলের জরুরি সভায় হামলায় নেতৃত্ব দেয়া শাওনকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলেও জানান অধ্যক্ষ।”

লাইভ

টপ