• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

কলাপাড়ায় নিরাপত্তা জোরদার

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট৭:০৩ অপরাহ্ণ, মার্চ ২১, ২০১৬

কলাপাড়া: মঙ্গলবার পটুয়াখালীর কলাপাড়ার তিনটি ইউনিয়নে নির্বাচন। এই প্রথম বারের মত দলীয় প্রতিকে উপজেলার নীলগঞ্জ, চাকামইয়া ও টিয়াখালী ইউনিয়নে প্রথম দফা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ তিনটি ইউনিয়নে ২৭ টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৯ টি কেন্দ্রকে অধিক ঝুকিপুর্ন বলে চিহ্নিত করেছে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা। সংহিসতা এড়াতে বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশ নির্বাচনী এলাকা নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দিয়েছে। সোমবার বিকেলের মধ্যে কেন্দ্রের প্রিজাইটিং অফিসাররা নির্বাচন অফিস থেকে নির্বাচনের ব্যালট পেপার ও স্বচ্ছ ভোটর বাক্স নিয়ে স্ব স্ব কেন্দ্রে অবস্থান নিয়েছে। এদিকে সরকার দলীয়দের দাপটে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারকে কিনা এ নিয়ে ভোটারবাও রায়েছে আতংকে।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার তিনটি ইউনিয়নে মোট ১০ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী সহ একাধিক মেম্বার ও সংরক্ষিত মহিল মেম্বর প্রার্থী রয়েছে। টিয়াখালী ইউনিয়নে মোট ভোটার ১০ হাজার ৮’শ ৫৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫ হাজার ৩ ’শ ২০ জন ও মহিলা ভোটার ৫ হাজার ৫’শ ৩৭ জন। চাকামইয়া ইউনিয়নে মোট ভোটার ১২ হাজার ৭’শ ৪০ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৬ হাজার ৩ ’শ ২০ জন ও মহিলা ভোটার ৬ হাজার ৪’শ ২০ জন। নীলগঞ্জ ইউনিয়নে মোট ভোটার ২০ হাজার ৫’শ ৩৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১০ হাজার ৩ ’শ ১ জন ও মহিলা ভোটার ১০ হাজার ২ ’শ ৩৬। মঙ্গলবার ভোটাররা তাদের মূল্যবান ভোটাধিকার প্রয়োগ করে আগামী পাচঁ বছরের জন্য নির্বাচিত করবে তাদের উন্নয়ন নেতৃত্বের কান্ডারী।  

আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সূত্রে জানা গেছে, তিন ইউনিয়নে ২৭ টি ভোট কেন্দ্র রয়েছে। অধিকাংশ কেন্দ্র গুলো ঝুঁকিপূর্ন। এর মধ্যে উপজেলার টিয়াখালী ইউনিয়নের কে আই নিন্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মধ্য টিয়াখালী কে আই মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ইটবাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, চাকামইয়া ইউনিয়নের বেতমোর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, নেওয়াপাড়া দাখিল মাদ্রসা, নুর মোহাম্মদ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও নীলগঞ্জ ইউনিয়নের ৪৯ নং নীলগঞ্জ সরকারী প্রথমিক বিদ্যালয়, ৪০ নং ফরিদগঞ্জ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৪২ নং টুঙ্গিবাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এই ৯ টি ভোট কেন্দ্রকে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা অধিক ঝুঁকিপর্ন হিসেবে চিহ্নিত করেছে।

কলাপাড়া থানার ওসি জিএম শাহনেওয়াজ জানান, ঝুকিপুর্ণ কেন্দ্রসহ এলাকা শণাক্ত করা হয়েছে। প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে আনছার, ভিডিপি ও পুলিশ সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবে। এছাড়াও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট, বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশের বিশেষ টিম মাঠে থাকবেন। আইন শৃংখলা রক্ষায় সকল ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সৈয়দ আবুবকর সিদ্দিক জানান, সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন সম্পন্নের লক্ষ্যে সকল ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে স্ব স্ব ভোট কেন্দ্রে কেন্দ্রের প্রিজাইটিং অফিসারসহ ব্যালট পেপার ও স্বচ্ছ ভোটর বাক্স নিয়ে পাঠানো হয়েছে।

ads

লাইভ

টপ