• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

ইউএনও হেনস্তায় ফাঁসলেন বরিশালের সেই বিচারক

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট১০:৩০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১০, ২০১৭

আগৈলঝাড়ার সাবেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গাজী তারিক সলমনের খারিজ হওয়া মানহানির মামলার বিচারক বরিশালের চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) মোহাম্মদ আলী হোসাইনকে বদলির প্রস্তাবে সায় দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট। তবে আইন মন্ত্রণালয় তাকে জামালপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ হিসেবে বদলির প্রস্তাব দিলেও একই পদে নারায়ণগঞ্জে বদলি করার পরামর্শ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের জেনারেল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (জিএ) কমিটি।

জিএ কমিটির বৈঠকে সম্প্রতি আইন মন্ত্রণালয়কে এ পরামর্শ দেওয়া হয়। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে হাইকোর্ট বিভাগের তিন বিচারপতির সমন্বয়ে এ কমিটি গঠিত। আইন মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ওই বিচারকের বিরুদ্ধে সম্প্রতি সার্কিট হাউজ ও লঞ্চে ভাড়া না দেওয়ার বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য প্রকাশিত হয়। এসব কারণে তাকে অন্যত্র বদলি করতে সুপ্রিম কোর্টের কাছে প্রস্তাব করে মন্ত্রণালয়।

গত ২৪ জুলাই আইন মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগের সিনিয়র সহকারী সচিব মো. শাহাবুদ্দিন স্বাক্ষরিত চিঠিতে বদলির প্রস্তাব করা হয়। পরদিন ২৫ জুলাই সুপ্রিম কোর্টে চিঠিটি পৌঁছে।

পাশাপাশি বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস কমিশনের পরীক্ষক (অতিরিক্ত জেলা জজ) শেখ আশফাকুর রহমানকে বরিশালের মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) হিসেবে বদলির প্রস্তাব করা হয়। চিঠিতে বলা হয়, ‘বরিশালের মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) ২০১৪ সালের আগস্টে বর্তমান কর্মস্থলে যোগদান করেছেন।

একজন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে তার আদালতে দায়েরকৃত মামলায় জামিনের বিষয়ে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক, প্রিন্ট মিডিয়া ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হচ্ছে। যা অত্র বিভাগের গোচরীভূত হয়েছে’।

‘তাছাড়া ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে পরবর্তী সময়ে সংশ্লিষ্ট বিচারকের বিরুদ্ধে সার্কিট হাউজে অবস্থানের বিল ও গ্রিন লাইন পরিবহনে যাতায়াতের ভাড়া পরিশোধ না করা সংক্রান্ত অভিযোগ উত্থাপিত হচ্ছে।

যার ফলে বরিশাল চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচার কার্যক্রম নিয়ে জনমনে নানাবিধ বিভ্রান্তির সৃষ্টি হচ্ছে’।

এ পরিস্থিতিতে বরিশাল সিএমএম আদালত ও বিচার বিভাগের ভাবমূর্তি ও সুনাম অক্ষুন্ন রাখার স্বার্থে বিচারক মোহাম্মদ আলী হোসাইনকে অন্যত্র বদলি করা আবশ্যক।”

লাইভ

টপ