• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

আদালতে থাকবেন খালেদা, বরিশালে শেখ হাসিনা

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট২:৪৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৩, ২০১৮

আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ৮ ফেব্রুয়ারি। যতই দিন ঘনিয়ে আসছে সরগরম হয়ে উঠছে দেশের রাজনৈতিক মাঠ। এদিন বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার একটি মামলার রায় ঘোষণা করা হবে। এ কারণে আদালতেই উপস্থিত থাকতে হবে সাবেক এ খালেদা জিয়াকে। অন্যদিকে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা থাকবেন বরিশালে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে খালেদা জিয়াসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় মামলা করে দুদক। গত ২৫ জানুয়ারি দুদক ও আসামি পক্ষের যুক্তি তর্ক উপস্থাপন শেষে রায়ের জন্য ৮ ফেব্রুয়ারি ধার্য করে দেন ঢাকার বকশিবাজার আলিয়া মাদ্রাসার মাঠে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালত মো. আখতারুজ্জামান।

২৩৬ কার্যদিবসে ৩২ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ, ২৮ কার্য দিবস আত্মপক্ষ সমর্থন ও ১৬ কার্য দিবস যুক্তিতর্ক শুনানি শেষে বিচারক রায়ের জন্য এ দিন নির্ধারণ করেন। মামলা দায়েরের ১০ বছর পর এ রায় ঘোষণা করা হচ্ছে। সাবেক কোনো প্রধানমন্ত্রীর দুর্নীতির বিচারের রায় বাংলাদেশে এটাই প্রথম। এর আগে সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষিত হয়েছে। তিনি প্রায় ছয় বছর সাজা খেটেছেন।

শুনানি শেষে খালেদা জিয়ার আইনজীবী অ্যাডভোকেট আব্দুর রেজ্জাক খান খালেদা জিয়াসহ অন্যান্য আসামির বিরুদ্ধে মামলা প্রমাণিত হয়নি দাবি করে সব আসামির খালাস দাবি করেন। অপরদিকে দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছেন দাবি করে সব আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড চেয়েছেন।

এদিকে, ৮ ফেব্রুয়ারি আওয়ামী লীগ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিভাগীয় নগরী বরিশালে যাবেন। প্রায় ছয় বছর পর প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে বরিশাল নগরীসহ গোটা দক্ষিণাঞ্চল জুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে উৎসবের আমেজ। ব্যাস্ত সময় কাটাচ্ছেন উৎফুল্ল স্থানীয় নেতাকর্মীরা। নগরীতে চলছে সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ। প্রধানমন্ত্রীর সফরকে কেন্দ্র করে জেগে উঠেছে আওয়ামী লীগ ও তার সকল সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

২০১৮ সালকে নির্বাচনী বছর বলেই বলা হচ্ছে। এ বছরের প্রথমার্ধেই বরিশালসহ ছয়টি সিটি কর্পোরেশনে নির্বাচন আয়োজনের কথা জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন। অন্যদিকে, এ বছরের শেষের দিকে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এই দুই নির্বাচনের জন্য তৃণমূলে দলকে সংগঠিত ও উজ্জীবীত করতে শেখ হাসিনার এ সফর দলকে স্থানীয় পর্যায়ে আরও চাঙ্গা করবে বলে বলছে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

লাইভ

টপ