• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

আজীবন নিষিদ্ধ বরিশালের মালিক

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট১১:৩২ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১৭, ২০১৬

শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে আজীবনের জন্য সব ধরনের ক্রিকেটীয় কার্যক্রমে নিষিদ্ধ হয়েছেন রিজওয়ান বিন ফারুক। তিনি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) মার্কেটিং এজেন্ট ও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) দল বরিশাল বুলসের মালিক। এশিয়া কাপের ফাইনাল শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মারপিটের ঘটনা ঘটিয়েছিলেন রিজওয়ান। বিষয়টিকে শৃঙ্খলা ভঙ্গের পাশাপাশি বিসিবির ভাবমূর্তির ক্ষেত্রে ক্ষতিকারক হিসেবেই দেখছে বিসিবির শৃঙ্খলা বিষয়ক কমিটি। শনিবার তাই রিজওয়ানকে বাংলাদেশের ক্রিকেটাঙ্গন থেকে আজীবন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এদিকে, জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক ও তারকা ক্রিকেটার রকিবুল হাসানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নিয়েছে বিসিবির শৃঙ্খলা কমিটি। গত বছর বিপিএলে ঢাকা ডায়নামাইটস ও বরিশাল বুলসের ম্যাচে টস বিতর্কের ঘটনায় রকিবুলকে ম্যাচ রেফারির পদ থেকে সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ করেছিল বিসিবি। পরবর্তীতে ক্ষমা প্রার্থনা করায় শনিবার বাংলাদেশের এই সাবেক অধিনায়কের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে শৃঙ্খলা কমিটি।

প্রসঙ্গত, চলতি বছর এশিয়া কাপ টি২০ ক্রিকেটের ফাইনাল ম্যাচ শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অপ্রীতিকর এক পরিস্থিতির জন্ম দিয়েছিলেন রিজওয়ান বিন ফারুক। টুর্নামেন্টের স্বত্ব কিনে নেওয়া প্রতিষ্ঠান টোটাল স্পোর্টসের মার্কেটিং প্রধান মঈনুল হক চৌধুরীর ওপর চড়াও হয়ে মারপিটের ঘটনা ঘটান তিনি।

এই বিষয়ে শনিবার সভাশেষে বিসিবির সহসভাপতি আ জ ম নাছির উদ্দিন মিডিয়াকর্মীদের বলেন, ‘তার (রিজওয়ান বিন ফারুক) এমন আচরণে বোর্ডের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে। এ জন্য আমরা কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছি। তাকে ক্রীড়াঙ্গনে তথা স্টেডিয়াম পাড়া থেকে আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। উনি কোনোভাবে ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারবেন না। এমনকি ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট কোনো ক্লাবের কিংবা কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গেও সম্পৃক্ত থাকতে পারবেন না।’

মঈনুল চৌধুরীর সঙ্গে রিজওয়ানের বিরোধটা কী নিয়ে ছিল— সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে আ জ ম নাছির বলেছেন, ‘মঈনুলের সঙ্গে কী নিয়ে সমস্যা হয়েছে, এটা আমাদের বিবেচ্য বিষয় নয়। একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচের ফাইনাল ম্যাচের সময়ে এমন অপ্রীতিকর ঘটনা কখনই কাম্য হতে পারে না। তাই এমন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছি।’

রিজওয়ানের প্রতিষ্ঠান এক্সিওম টেকনোলজিস দীর্ঘদিন ধরে বিসিবির সঙ্গে ব্যবসায়িকভাবে যুক্ত। বিসিবির জন্য বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানকে স্পন্সর হিসেবে যোগাড় করতেন তিনি। অনেক কোম্পানির সঙ্গে এখনো চুক্তি রয়েছে এক্সিওম টেকনোলজিসের। এই বিষয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন সুজন বলেছেন, ‘বিসিবির সঙ্গে ক্রিকেট সম্পর্কিত কিছুতে তিনি থাকতে পারবেন না। স্পন্সর প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে কিছু থাকলে; সেটা লিগ্যাল অ্যাডভাইজারদের সঙ্গে পর্যালোচনা করে দেখব।’

লাইভ

টপ